আজ ২৭শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১০ই জুন, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে স্বাধীনতাবিরোধীরা ভেবেছিল স্বাধীন রাষ্ট্র পরাহত করে পাকিস্তানে ফেরা যাবে


জাতীয় শ্রমিক লীগের আলোচনা সভায় মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী

১৫ আগস্ট ’৭৫-এর ঘাতক ও পাকিস্তানী দোসররা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্নযাত্রাকে থামিয়ে দেয়। বাংলার মেহনতী শ্রমিক জনতার ভাগ্যে বিপর্যয় নেমে আসে। স্বাধীনতার পরাজিত শত্রুরা ভেবেছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করতে পারলে স্বাধীনতাকে পরাহত করে বাংলাদেশকে আবারও পাকিস্তান বানানো সম্ভব হবে। কিন্তু তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রামের পর জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের সরকার ক্ষমতায় এসে গণতন্ত্র, উন্নয়নের রাজনীতি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, শ্রমিকদের বেতন-ভাতা, মজুরি ও অন্যান্য সুযোগসুবিধা বৃদ্ধি করে পিতার স্বপ্নের বাংলাদেশ সোনার বাংলা বিনির্মাণে কাজ করে যাচ্ছেন। জাতীয় শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগর আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী একথা বলেন।

জাতীয় শ্রমিকলীগ চট্টগ্রাম মহানগরের উদ্যোগে গত ১৫ আগস্ট ২০২২ সোমবার বিকাল ৪টায় নগরের চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক মিলনায়তনে বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে মিলাদ, দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভা সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিবের সভাপতিত্বে জাতীয় রিক্সাভ্যান শ্রমিক লীগ চট্টগ্রাম মহানগরের সভাপতি স্বপন কান্তি বিশ্বাস ও কোতোয়ালী থানা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্তার হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী। প্রধান বক্তা ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নাঈম উদ্দিন আহাম্মেদ।

এসময় বক্তারা আরও বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যে দিয়ে সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র হয়েছিল এবং ঘাতকরা দেশ ও জাতিকে কলঙ্কিত করেছে। আজ শোককে শক্তিতে পরিণত করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধী দলের সকল ধরণের ষড়যন্ত্র আর চক্রান্ত শ্রমিক সমাজকে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে। সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ট্রাক কাভার্ডভ্যান চালক শ্রমিক ইউনিয়নের চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা শেখ নওশেদ সরোয়ার পিল্টু, চট্টগ্রাম মহানগর ১৪ দলীয় জোটের নেতা ন্যাপ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মিঠুল দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির চট্টগ্রাম জেলা কমিটির প্রখ্যাত শ্রমিক নেতা মোক্তার হোসেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্য বিভাগের গবেষক ডি কে দাস মামুন, পতেঙ্গা ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মো. মাঈনুল ইসলাম, চট্টগ্রাম পৌর জহুর মার্কেট দর্জি শ্রমিক লীগের সভাপতি কাঞ্চন দাস, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ কর্মচারী লীগের সভাপতি বিমান বড়ুয়া, চট্টগ্রাম পৌর জহুর মার্কেট দোকান কর্মচারী সমিতির সাবেক সভাপতি আশীষ চৌধুরী, চট্টগ্রাম অটোরিকশা অটোটেম্পু শ্রমিক লীগের সভাপতি মোহাম্মদ ইলিয়াস, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম খোকন, চট্টগ্রাম মহানগর ছিন্নমূল সমন্বয় সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবু আহামদ, কোতোয়ালি থানা জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান, বাংলাদেশ অটোরিকশা অটোটেম্পু শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ওসমান গণি, বাংলাদেশ অটোরিকশা (সিএনজি) অটোটেম্পু শ্রমিকলীগ, চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সভাপতি মো. নুরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মহানগর সড়ক পরিবহন শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. কালিম শেখ, চট্টগ্রাম জেলা সড়ক প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে বিশেষ দোয়া, মিলাদ ও মুনাজাত পরিবেশিত হয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর