আজ ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

চবি’র সাংবাদিকতা বিভাগের আয়োজনে দিনব্যাপী গবেষণা কর্মশালা


চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) কম্যুউনিকেশন অ্যান্ড জার্নালিজম রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে দিনব্যাপী ‘ওয়ার্কশপ অন রিসার্চ’ শীর্ষক দুই পর্বের একটি গবেষণা কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ সোমবার (১৪ নভেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ মিলনায়তনে সকাল নয়টায় কর্মশালার প্রথম পর্ব শুরু হয়। শেষ হয় বেলা একটায়। দুপুর দুইটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত শিক্ষকদের অংশগ্রহণে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের কনফারেন্স কক্ষে কর্মশালার দ্বিতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

চবির যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় অনুষ্ঠিত এ কর্মশালায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক-বর্তমান প্রায় চার শতাধিক শিক্ষার্থীর পাশাপাশি শিক্ষকরাও অংশ নেন। কর্মশালা শেষে অংশগ্রহণকারীদের সনদ দেওয়া হয়।

যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি ড. মো. শহীদুল হকের সভাপতিত্বে কর্মশালাতে প্রধান আলোচক ছিলেন যুক্তরাজ্যের ল্যাঙ্কাস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন চবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক বেনু কুমার দে। বিশেষ অতিথি ছিলেন সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌল্লাহ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার অধ্যাপক এসএম মনিরুল হাসান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী গোলাম আজম।

প্রধান আলোচকের বক্তব্যে অধ্যাপক ড. সাইদুর রহমান বলেন, বর্তমানে পৃথিবীতে এমন কোনও ফিল্ড নেই যেখানে গবেষণার প্রয়োজন নেই। গবেষণা একটি প্রতিষ্ঠানকে যেমন সামনের দিকে এগিয়ে নেয়, তেমনি একজন শিক্ষার্থীকেও তার কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। তবে এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি যেটি দরকার তা হলো সেলফ মোটিভেশন। কেননা গবেষণা এমন একটি কাজ যেখানে আপনি অল্পতেই সফল হতে পারবেন না। আবার অন্যদের থেকেও খুব একটা সাহায্য পাবেন না। আপনার নিজেকেই নিজের সাহায্য করতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের শিল্পকারখানা বিশ্বের প্রতিটি দেশেই বিখ্যাত। এটা সম্ভব হয়েছে গবেষণার মাধ্যমে নতুন নতুন পণ্য আবিষ্কারের ফলে। আমাদের দেশের শিক্ষার্থীরা অনেক মেধাবী। তবে একজন সফল গবেষক হতে হলে প্রয়োজন ইচ্ছাশক্তি, মনোবল এবং ধৈর্য। এ সময় তিনি গবেষণার বিভিন্ন দিক নিয়ে আলোচনা করেন এবং গবেষণাপত্র লেখার বিষয়ে শিক্ষার্থীদের দিকনির্দেশনা দেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক বেনু কুমার দে বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে গবেষণার বিকল্প নেই। গবেষণার মাধ্যমে আমরা অনেক অজানা বিষয় থেকে নতুন কিছু জানতে পারছি এবং এটাকে কাজে লাগিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি।

যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি ড. মো. শহীদুল হক বলেন, কর্মশালাটি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য একটি বড় সুযোগ। কারণ গবেষণা ছাড়া আপনি এখন সামনের দিকে এগোতে পারবেন না। বর্তমান পৃথিবীর সব সেক্টরে গবেষণা আছে। এমনকি আপনি যদি উচ্চশিক্ষা অর্জন করতে চান তাহলেও গবেষণা করা এবং গবেষণা করতে জানাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমি মনে করি এ গবেষণা কর্মশালার মাধ্যমে আমাদের শিক্ষার্থীরা নিজেদের ভালো গবেষক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে এক ধাপ এগিয়ে যেতে পারবে। বক্তব্য দেন যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ মোরশেদুল ইসলাম, আবুল কালাম আজাদ ও চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সাবির হোসেন।

তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ২৪


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর