আজ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

বজ্রপাতে পেকুয়ায় ২ লবণ শ্রমিকের মৃত্যু


অনলাইন ডেস্কঃ বজ্রপাতে কক্সবাজারের পেকুয়ায় কিশোরসহ দুইজন লবণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ মে) ভোরে উপজেলার মগনামা ও রাজাখালী ইউনিয়ন এলাকার লবণের মাঠে এ দুর্ঘটনা ঘটে। মৃত দিদারুল ইসলাম (৩০) মগনামা ইউনিয়নের কোলাইল্লাদিয়া এলাকার জমির উদ্দিনের ছেলে। অপরজন আরাফাত হোসাইন (১৪) উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের ছরিপাড়া এলাকার জামাল হোসেনের ছেলে।

দিদারের চাচা জাকের হোসাইন বলেন, ‘ভোর চারটার দিকে আকাশে মেঘ জমলে ভাতিজা দিদারকে নিয়ে আমিও লবণ তুলতে মাঠে যাই। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত ঘটলে ঘটনাস্থলেই মারা যায় দিদারুল ইসলাম।’

মগনামা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) প্যানেল চেয়ারম্যান বদিউল আলম বলেন, ‘দিদার আমার পার্শ্ববর্তী আবুল কালামের লবণ মাঠে কাজ করতো। ভোরে আকাশে মেঘ দেখা গেলে অন্যান্য শ্রমিকের মতো লবণ তুলতে গিয়ে বজ্রাঘাতের কবলে পড়ে সে। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্মরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

আরও পড়ুন মহেশখালী উপজেলা নির্বাচনের প্রার্থীদের সাথে প্রশাসনের মতবিনিময়

অপরদিকে একই সময়ে লবণ তুলতে বাবার সঙ্গে মাঠে গিয়ে বজ্রাঘাতে মারা গেছেন কিশোর ফরহাদ হোসাইন। তাকে মাঠ থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল আবছার বদু। বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যান ও স্থানীয় প্রশাসনকে জানানো হয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

পেকুয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুদীপ্ত ভট্টাচার্য বলেন, ‘এখনো থানায় এ সংক্রান্ত তথ্য আসেনি। আমরা খোঁজ নিচ্ছি।’

পেকুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাইফুল ইসলাম জয় বলেন, ‘বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া তিনটা থেকে সাড়ে তিনটার দিকে মাঠে লবণ তুলতে গিয়ে বজ্রাঘাতে দুজন মারা গেছেন। এটা মর্মান্তিক। তাদের পরিবারকে প্রশাসনিক সহায়তা দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।’

তথ্যসূত্র: জাগোনিউজ২৪


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর