আজ ৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

জাতীয় তথ্য বাতায়নে নেই দোহাজারী পৌরসভার ওয়েব পোর্টাল


মো. কামরুল ইসলাম মোস্তফা, চন্দনাইশঃ জাতীয় তথ্য বাতায়নে নেই দোহাজারী পৌরসভার ওয়েব পোর্টাল। এতে স্মার্ট বাংলাদেশ তো বটে ডিজিটাল বাংলাদেশের তথ্যসেবা থেকেও বঞ্চিত হচ্ছেন পৌরবাসী।

চন্দনাইশ উপজেলার দোহাজারী ইউনিয়ন পৌরসভায় উন্নীত হওয়ার পর সাত বছর পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত ‘গ’ শ্রেণিভুক্ত দোহাজারী পৌরসভার হালনাগাদ তথ্য সম্বলিত ওয়েব পোর্টাল তৈরি করা হয়নি। এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার অন্তরায়। দ্রুততম সময়ে দোহাজারী পৌরসভার ওয়েব পোর্টাল তৈরির দাবি করছেন স্থানীয় সচেতন মহল।

জানা গেছে, দক্ষিণ চট্টগ্রামের বাণিজ্যিক উপশহর হিসাবে পরিচিত দোহাজারী ইউনিয়নকে পৌরসভায় রূপান্তরের জন্য ইউনিয়নবাসীর দীর্ঘদিনের দাবির প্রেক্ষিতে স্থানীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরীর আন্তরিক প্রচেষ্টায় দোহাজারী ইউনিয়নের নয়টি ও পার্শ্ববর্তী সাতবাড়িয়া ইউনিয়নের দুইটি ওয়ার্ড নিয়ে ২০১৭ সালে গঠিত হয় দোহাজারী পৌরসভা। ওই বছরের ১১মে দোহাজারী ইউনিয়নকে পৌরসভায় উন্নীত করে সরকারী গেজেট বা পরিপত্র জারি করা হয়। এরপর পালাক্রমে সাত জন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভিন্ন মেয়াদে এই পৌরসভার প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

সীমানা নির্ধারণ জটিলতা শেষে গত বছর ১৭ জুলাই দোহাজারী পৌরসভার প্রথম নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিসেবে উপজেলা যুবলীগ সদস্য মো. লোকমান হাকিম পৌর মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনের একমাস পর ১৭ আগস্ট পৌরসভা প্রাঙ্গণে পৌরসভা আয়োজিত এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে নবনির্বাচিত মেয়রের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করেন বিদায়ী পৌর প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহমুদা বেগম। দায়িত্ব গ্রহণের এক সপ্তাহ পর ২৪ আগস্ট পৌর পরিষদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর আরো পাঁচটি মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হলেও পৌরসভার নিজস্ব ওয়েব পোর্টাল তৈরির বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি পৌর পরিষদ।

আরও পড়ুন দোহাজারী পৌরসভা: বাসস্ট্যান্ডে নেই যাত্রীছাউনি, গণশৌচাগার

‘তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯’ এর ৪ ধারা অনুযায়ী, তথ্য পাওয়া নাগরিকদের অধিকার উল্লেখ করে বলা হয়, আইনের ৬ ধারায় তথ্য প্রকাশের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং তথ্য কমিশনের ‘স্বপ্রণোদিত তথ্য প্রকাশ নির্দেশিকা, ২০১৪’ তে নিজ নিজ ওয়েবসাইটে প্রকাশযোগ্য সব হালনাগাদ তথ্য দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

সাবেক দোহাজারী ইউনিয়ন পরিষদের নামে একটি ওয়েব পোর্টাল থাকলেও সেই ওয়েব পোর্টালে দেয়া হয় না পৌরসভার কোনো নোটিশ বা কার্যক্রমের বিবরণ। বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সার্চইঞ্জিন গুগলে দোহাজারী পৌরসভা লিখে ব্রাউজ করার পর www.dohazariup.Chittagong.gov.bd নামে একটি ওয়েবসাইট দেখা যায়। গত ২৭সেপ্টেম্বর সর্বশেষ হালনাগাদ করা পোর্টালটিতে ব্রাউজ করার পর কেবলমাত্র লোগোতে দোহাজারী পৌরসভা দেখা গেলেও ইউনিয়ন পরিষদের পুরনো তথ্যগুলোই দেখা যায় এতে। নির্বাচিত পৌর মেয়র এবং পৌর পরিষদের হালনাগাদ কোনো তথ্য নেই এতে।

দোহাজারী পৌরসভার নিজস্ব ওয়েব পোর্টাল না থাকার বিষয়ে জানতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর চট্টগ্রামের প্রোগ্রামার শিমুল ভৌমিক বলেন, ‘দোহাজারী পৌরসভার নিজস্ব ওয়েব পোর্টাল আছে, তবে হালনাগাদ করা নেই। ইউপি থেকে পৌরসভায় উন্নীত হওয়ার পর পোর্টালটিতে তথ্য হালনাগাদ করা হয়নি। ওয়েব পোর্টাল পরিচালনা সংক্রান্ত বিষয়ে বিভিন্ন ইউপি সচিবগণ প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। কোনো কারনে হয়তোবা দোহাজারীর সচিব (বর্তমানে পৌর নির্বাহী কর্মকর্তা) প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেননি।’


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর