আজ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

মন্দা মোকাবেলায় নাগরিকদের সরাসরি অর্থসহায়তা দেবে মালয়েশিয়া সরকার


জীবন-যাত্রার ব্যয় অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ায় অল্প আয়ের নাগরিকদেরকে সরাসরি অর্থ সহায়তা দেয়ার লক্ষ্যে চলমান ভর্তুকি প্রোগ্রাম পর্যালোচনা করছে মালয়েশিয়ার নতুন সরকার। রবিবার (২৭ নভেম্বর) দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম এ কথা জানিয়েছেন। তাছাড়া জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধির বিষয়টিও তার সরকারের অগ্রাধিকারে থাকবে।

এক বিবৃতিতে আনোয়ার ইব্রাহিম বলেন, ভর্তুকি সংকুচিত করার প্রভাব পর্যালোচনা করার জন্য সরকারি সংস্থাগুলোর কাছে দুই সপ্তাহ সময় রয়েছে। মালয়েশিয়া মূলত সব নাগরিকদের জন্য ভর্তুকি দিয়ে থাকে। এর মধ্যে জ্বালানি ও রান্নার তেলে সবচেয়ে বেশি খরচ হয়। দেশটি বিদ্যুৎ, চিনি ও আটাতেও ভর্তুকি দেয়।

নতুন প্রধানমন্ত্রী বলেন, ভর্তুকি অবশ্যই নির্দিষ্ট হতে হবে। কারণ বর্তমানে ভর্তুকি শুধু নিম্ন-আয়ের মানুষ নয়, ধনীরাও পাচ্ছে। কয়েকদিন আগে মালয়েশিয়ার দশম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন আনোয়ার ইব্রাহিম। তিনি দেশটির প্রধান রাজা ও পেনাংয়ের সুলতান আবদুল্লাহ রিয়াতউদ্দিন আল মোস্তাফার উপস্থিতিতে শপথ নেন।

কুয়ালালামপুরে সুলতান আবদুল্লাহর প্রশাসনিক ভবন আসতানা নেগারা প্রাসাদে স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় শপথ নেন তিনি। ৭৩ বছর বয়সী মালয়েশিয়ান এ নেতা ছাত্রনেতা থেকে সংস্থারপন্থি অর্থনীতিবিদ, মন্ত্রী থেকে উপ-প্রধানমন্ত্রী পদে আসীন হওয়া, বারবার কারাবরণ এবং মালয়েশিয়ার কয়েক দশকের শাসনকারী দলকে ক্ষমতা থেকে উৎখাতের প্রতিটি পর্যায়ের নায়ক।

দেশটির সাধারণ নির্বাচনে আনোয়ার ইব্রাহিমের দল পাকাতান হারাপান (পিএইচ) জোট ৮২টি আসনে জয় পায়। অন্যদিকে মুহিউদ্দিন ইয়াসিনের দল পেরিকাতান ন্যাসিওনাল (পিএন) পায় ৭৩ আসন।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর