আজ ২২শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

পোর্ট সিটি ইউনিভার্সিটির দ্বিতীয় সমাবর্তন ২৬ নভেম্বর


আগামি শনিবার (২৬ নভেম্বর) পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির দ্বিতীয় সমাবর্তন টাইগারপাস নেভি কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হবে। আজ বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) বেলা ১২টায় পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য দেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আনোয়ার।

উপাচার্য জানান, দ্বিতীয় সমাবর্তনের মাধ্যমে ইউনিভার্সিটির স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শ্রেণিতে পাসকৃত মোট ৫ হাজার ৬৪৯ জন শিক্ষার্থীকে আনুষ্ঠানিকভাবে ডিগ্রি প্রদান করা হবে। এর মধ্যে ১ হাজার ৫১৭ জন শিক্ষার্থী দ্বিতীয় সমাবর্তন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য নিবন্ধন করেছে। এবারের সমাবর্তনে ১৪ জন শিক্ষার্থীকে চ্যান্সেলর গোল্ড মেডেল ও ১৩ জন শিক্ষার্থীকে ফাউন্ডার গোল্ড মেডেল প্রদান করা হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। বিশেষ অতিথি থাকবেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা একেএম এনামুল হক শামীম। সমাবর্তন বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমেদ কায়কাউস। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. দিল আফরোজা বেগম অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপাচার্য অধ্যাপক ড. নূরুল আনোয়ার বলেন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সমন্বিত কাজের স্বাক্ষর রাখছে এই ইউনিভার্সিটি। ইতিমধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি, রুমানিয়ার মানুবিয়াস ইউনিভার্সিটি অব গালাচি, কানাডার নোবেল ইউনিভার্সিটি, চীনের নানসাং ইউনিভার্সিটিসহ বিদেশি বিভিন্ন ইউনিভার্সিটির সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করা হয়েছে। এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার অ্যাকাডেমি অব বিজনেস লিডারশীপের আজীবন সদস্যের সম্মানও অর্জন করেছে এই ইউনিভার্সিটি। শিক্ষকদের উচ্চতর প্রশিক্ষণ প্রদানে ইউনিভার্সিটির উদ্যোগে পাঠানো হয়েছে মালয়েশিয়া, যুক্তরাজ্য ও ভারতসহ বিভিন্ন দেশে।

তিনি আরও বলেন, উন্নত বিশ্বের শিক্ষাপদ্ধতির সাথে সমন্বয় রেখে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের নির্দেশনায় আউটকাম বেজড অ্যাডুকেশন কারিকুলাম তৈরির কাজ সম্পন্ন হয়েছে। শিক্ষকদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেওয়া হচ্ছে কারিকুলাম বিষয়ক বিভিন্ন প্রশিক্ষণ। শিক্ষার গুণগতমান ও স্বীকৃত মানদণ্ড নিশ্চিতকরণে প্রতিবছর বিভিন্ন বিভাগ প্রোগ্রামভিত্তিক তাদের সেল্ফ অ্যাসেসমেন্ট রিপোর্ট প্রস্তুত করে থাকে। বাংলাদেশ রিসার্চ অ্যান্ড অ্যাডুকেশন জরিপে অনলাইন পাঠদানে সারাদেশের ইউনিভার্সিটিগুলোর মধ্যে ষষ্ঠ স্থান অর্জন করেছে এই ইউনিভার্সিটি।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালের ১৮ নভেম্বর পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের অনুমোদন লাভ করে। এই ধারাবাহিকতায় ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি’র নেতৃত্বে ২০১৩ সালের ১৭ মে ৬ জন শিক্ষক, ৪ জন কর্মকর্তা ও ১ জন কর্মচারী এবং ছয়টি প্রোগ্রামে ৬৯ জন শিক্ষার্থী নিয়ে এই ইউনিভার্সিটি শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে। বর্তমানে ইউনিভার্সিটির ১৭০ জন শিক্ষক, ৫ হাজার ৩৩৬ জন শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তা কর্মচারীর সংখ্যা ১৯০ জন। ৪টি অনুষদের অধীনে ১০টি বিভাগের ১৩টি প্রোগ্রাম নিয়ে শিক্ষা কার্যক্রম চলছে।

তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ২৪


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর