আজ ৪ঠা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চন্দনাইশ উপজেলা ছাত্রলীগের শোক সভায় নজরুল ইসলাম চৌধুরী এমপি


মুহাম্মদ আরফাত হোসেন

চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, ৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির জনকসহ তার পরিবারের সদস্যদের নিশংসভাবে হত্যা করে তারা মনে করেছিল বাংলাদেশ আ.লীগকে নিচ্ছিন্ন করে দিবে কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশে আসার পর বাংলাদেশ আ.লীগের দায়িত্ব নিয়ে দলকে সুংগঠিত করে আজকে দেশের ক্ষমতায় আসিন। ফলে তার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে দেশ দিন দিন উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ১৯৪৮ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ গঠন করার পর থেকে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগের ভূমিকা প্রসংশনীয় ছিল।

একটি মহল দেশকে অরাজকতার দিকে ঠেলে দিয়ে দেশের উন্নয়ন কার্যক্রমকে বাঁধাগ্রস্থ করার চেষ্টা করছে। সে বিশৃঙ্খলাকারীদের প্রতিহত করতে আগামী দিনে আ.লীগের পক্ষ থেকে যে কর্মসূচি দেয়া হবে তাতে সক্রিয়ভাবে অংশ গ্রহন করার আহবান জানান। বিএনপি জামাত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মধ্য দিয়ে আইভি রহমানসহ আ.লীগের কেন্দ্রীয় ২৪ জন নেতাকে হত্যা করেছে। অনেক নেতা কর্মী আহত হয়ে পঙ্গুত্ববরণ করেছে। সে বিশৃঙ্খলাকারী বিএনপি জামাত জোটকে সাধারণ মানুষ কোনভাবেই মেনে নেবে না। তাই তারা সন্ত্রাসী পথ বেঁচে নিচ্ছে।
গত ২৫ আগস্ট বিকালে চন্দনাইশ উপজেলা ছাত্রলীগের উদ্যোগে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদাত বার্ষিকী, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার প্রতিবাদে আলোচনা সভা স্থানীয় একটি কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনের সভাপতি মো. আলমগীরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম চৌধুরী, প্রধান বক্তা ছিলেন দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, বিশেষ অতিথি ছিলেন যথাক্রমে উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু আহমদ জুনু, দক্ষিণ জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি হাবিবুর রহমান, পৌর মেয়র মাহাবুবুল আলম, প্রধান বক্তা ছিলেন দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এসএম বোরহান উদ্দীন, বিশেষ বক্তা ছিলেন মো. আবু তাহের। সাধারণ সম্পাদক মারজাদুল ইসলাম চৌধুরী আরমানের সঞ্চালনায় আলোচনায় অংশ নেন আ.লীগ নেতা যথাক্রমে মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী, আবু হেনা ফারুকী, শেখ টিপু চৌধুরী, তৌহিদুল আলম, যুবলীগ নেতা এসএম মুছা তসলিম, মুরিদুল আলম মুরাদ, দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগ নেতা যথাক্রমে মিজানুর রহমান, মো. মামুন, শাহাদাত হোসেন মানিক, তসলিম উল্লাহ, মামুনুর রহমান, তানভীর প্রমুখ।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর