আজ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

আবাহনীকে হারিয়ে ফেডারেশনের ফাইনালে মোহামেডানের প্রতিপক্ষ কিংস


অনলাইন ডেস্কঃ গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়ামে ফেডারেশন কাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে আবাহনীকে হারিয়ে ফাইনালে মোহামেডানের প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছে বসুন্ধরা কিংস। মঙ্গলবার (১৪ মে) দুই ব্রাজিলিয়ান রবসন দা সিলভা ও দরিয়েলতন গোমেজ এবং বদলি মোহাম্মদ ইব্রাহিমের গোলে ৩ শূন্যতে জয় তুলে নেয় কিংস।

অথচ ম্যাচটা জমজমাট লড়াই দিয়ে শুরু করেছিলো আবাহনী। প্রথম ২০ মিনিটের খেলা দেখে মনে হচ্ছিল, গোপালগঞ্জে দারুণ একটা ম্যাচই উপভোগ করতে যাচ্ছেন দর্শকেরা। এ সময়ে দুটি গোলের সুযোগ তৈরি করেছিলো আবাহনী। কিংসের সীমানায় বলের দখলও ছিলো তাদের কাছেই। কিন্তু একটি প্রতি–আক্রমণে রাকিবের পাস থেকে রবসনের গোল ম্যাচের ছবিটাই পাল্টে দেয়।

রবসন যে গোলটি করলেন, সেটির শুরুটা ছিলো অনেক পেছন থেকে। আবাহনীর অধিনায়ক রহমত মিয়ার একটি ভুল পাস ধরে আরেক ব্রাজিলিয়ান মিগুয়েল দামাসেনো লম্বা থ্রু বাড়ান ডান দিকে রাকিবের প্রতি। রাকিব বল নিয়ে ধরে এগিয়ে কাটব্যাক করেছিলেন আবাহনীর বক্সে। সেখানে বলটা খুঁজে নেন রবসন। তার পোস্ট–ঘেঁষা শটে গোলকিপার শহীদুল আলমের কিছুই করার ছিলো না।

আরও পড়ুন ফেডারেশন কাপ ফুটবলের ফাইনালে মোহামেডান

এরপর দ্বিতীয়ার্ধে আবাহনীর খেলা কেমন যেন ঝুলে গেলো। অথচ কিংস মাত্র ১–০ গোলেই এগিয়ে ছিলো। আকাশি–নীলদের খেলা দেখে কখনোই মনে হয়নি, কিংসকে চ্যালেঞ্জ জানাতে সক্ষম তারা। দ্বিতীয় গোলটি কিংস পায় আবাহনী ডিফেন্ডারদের ভুলে। বাঁ প্রান্ত দিয়ে রবসনের একটি আক্রমণ আবাহনীর ডিফেন্ডার প্রতিরোধ করলেও বলটা কোনো বাধা ছাড়াই চলে যায় মাঠের ডান দিকে। সেখানে কোনো চ্যালেঞ্জ ছাড়াই রাকিব বলটা ধরে বক্সের মধ্যে যে ক্রসটি করেন, তাতে হেড করে গোল করতে মোটেও ভুল হয়নি দরিয়েলতন গোমেজের। রাকিবের ক্রসটা যখন বাতাসে, তখনো আবাহনীর কোনো ডিফেন্ডারকে সেভাবে লাফাতে দেখা যায়নি।

দুই গোলে পিছিয়ে আবাহনী শুধু হারের অপেক্ষাই করেছে। যোগ করা সময়ে মোহাম্মদ ইব্রাহিম স্কোরশিটে নাম তোলেন খুব সহজেই। কিংসের এই তৃতীয় গোলকে অনেকটাই আজকের ম্যাচের প্রতীকী রূপ বলা যেতে পারে। বাঁ প্রান্ত থেকে আবাহনীর পোস্টে রবসনের সরাসরি একটি শট গোলকিপার শহীদুল ঠেকালেও ফিরতি বলটি ক্লিয়ার করতে দেখা যায়নি আবাহনীর কোনো ডিফেন্ডারকেই। অনেকটা দৌড়ে এসে বদলি খেলোয়াড় ইব্রাহিম বলটা জালে ঠেলে দেন। আলমগীর মোল্লা ইব্রাহিমের পেছনে ঠাঁয় দাঁড়িয়ে দেখেছেন গোলটি।

তবে যাই হোক, ফাইনালে কিংসের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী মোহামেডান। আগামি ২২ মে ময়মনসিংহের রফিকউদ্দিন ভূঁইয়া স্টেডিয়াম থেকে ষষ্ঠ শিরোপা নিশ্চয়ই ঘরে তুলতে চাইবেন পাঁচবারের লিগ চ্যাম্পিয়নরা।

তথ্যসূত্র: প্রথম আলো


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর