আজ ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রত্যাশা


অনলাইন ডেস্কঃ উপজেলা নির্বাচন যতে প্রশ্নবিদ্ধ না হয় সেজন্য ভোটারদের উপিস্থিতির পাশাপাশি সুষ্ঠু ভোটের প্রত্যাশা করছেন সকলে। যদিও ইলেকশন কমিশন একটি ভালো নির্বাচন উপহার দেওয়ার জন্য জাতির কাছে অঙ্গীকারবদ্ধ। এজন্য জনগণের সম্পৃক্ততা ও উৎসাহমূলক অংশগ্রহণ জরুরি। ৮ (মে বুধবার) চট্টগ্রামে ভোট হবে ৩০, সারাদেশে ১৫০ উপজেলায়। ইতোমধ্যে নির্বাচনী প্রচারণাও সমাপ্তির পথে। এখন দেশবাসীর বক্তব্য একটাই, সেটি হলো সুষ্ঠু নির্বাচন।

দুঃখজনক হলেও সত্যি, আমাদের দেশে কোনো নির্বাচন সহিংসতা ছাড়া হয় না। তবে এবারের প্রেক্ষাপট ভিন্ন। এবার সরকার বিরোধী বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল ভোট বর্জন করেছে। এতে বিএনপি, জামায়াত উল্লেখযোগ্য। যেহেতু বিএনপি জামায়াতের কোনো প্রার্থী ভোটে নেই তাই এ নির্বাচনে সহিংসতা কাম্য নয় দেশবাসীর। এর আগের নির্বাচনগুলোতে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যাওয়া প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছিলো বিএনপিসহ সমমনা দলগুলো। কিন্তু এবার সে ধরনের কোনো কর্মসূচি নেই।

আরও পড়ুন মে দিবস উদযাপন নাকী পালনের

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, গণতন্ত্র জোরদার এবং অব্যাহত উন্নয়নের স্বার্থে তার সরকারের লক্ষ্য হচ্ছে নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য করা। সেই মতে এবার উপজেলা নির্বাচনে সবপক্ষই চান নির্বাচন সুষ্ঠু হোক। কেউই ত্রুটিযুক্ত ও প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচনের প্রত্যাশা করেন না, এটাই স্বাভাবিক। তাই সবপক্ষেরই দায় রয়েছে, যাতে নির্বাচন সুষ্ঠু হতে পারে। নিজ নিজ দায়বদ্ধতা থেকে অন্তরে দেশপ্রেম ও গণতান্ত্রিক চেতনা লালন করে তাই ইতিবাচক ভূমিকাও রাখা চাই। সেটাই প্রত্যাশিত। কিছুতেই আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানো যাবে না। নির্বাচন সুষ্ঠু হতে হলে নির্বাচন প্রক্রিয়ার আদ্যোপান্ত সুষ্ঠু হওয়া আবশ্যক। তবেই না গন্তব্যে সুন্দরভাবে পৌঁছানো সম্ভব হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর