আজ ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

মেহেদীর রং শুকানোর আগেই পরপারে প্রবাসী নওফেল


মোঃ শোয়াইব,হাটহাজারী(চট্টগ্রাম)প্রতিনিধিঃ বিয়ের মাত্র এক মাস পর নওফেল বাদশা(৩৯) নামের এক প্রবাসী গত সপ্তাহে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমানে পাড়ি জমিয়েছেন জীবিকার তাগিদে। হাতের মেহেদীর রং এখনো শুকায়নি নবদম্পতির। আনন্দ উল্লাসের মধ্যেই চলছে দুই পরবারের নতুন সম্পর্ক।এরই মধ্যে নতুন দম্পতির সুখের সংসারে নেমে এসেছে অন্ধকার।কে জানত এটাই তার শেষ যাওয়া। সুলতানাত অফ ওমানে নিজ কর্মস্থলে জেনারেটরের আগুনে পুড়ে মারা যায়।তবে তার ভাই নওশাদ বলছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে নওফেল বাদশার মৃত্যু হয়েছে। (ইন্না লিল্লাহ ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। ওমানের স্থানীয় সময় সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৭ টার দিকে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

নওফেল হাটহাজারী উপজেলার পূর্ব গড়দুয়ারা মিন্নাত আলী সারাং বাড়ীর মোহাম্মদ ফজলুল হকের ছেলে। তিনি ৩ ভাই বোনের মধ্যে সবার বড়।

নিহতের ভাই নওশাদ জানান, এক মাস আগে সে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছে। হঠাৎ কর্মস্থলে চলে যেতে হয়েছিল তাকে।নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সে মারা যায়। ভাইয়ের মৃত্যুর খবর দেশে আসলে পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। আইনি প্রক্রিয়া শেষে তার মরদেহ দেশে আনা হবে।তবে জেনেরেটরে পুড়ে মারা গেছে সে বিষয়টি এড়িয়ে যান তিনি।

তবে গড়দুয়ারা ৭নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মাহাবুব আলম বলেন,বিয়ের এক মাস হতে না হতেই ওমানে চলে গেছে গত সপ্তাহে।শুনেছি জেনারেটরে আগুন ধরে সে পুড়ে গিয়ে মারা গেছে।লাশ দেশে আনা হলে জানা যাবে কি ভাবে মারা গেছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর