আজ ৭ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চন্দনাইশে বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের মাঝে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ড বিতরণ


মোঃ কামরুল ইসলাম মোস্তফা, চন্দনাইশঃ

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের মাঝে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ড বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন।

বৃহস্পতিবার (১০ নভেম্বর) সকালে উপজেলার বদুরপাড়া এলাকায় রেডিসন কনভেনশন ক্লাবে আনুষ্ঠানিকভাবে এ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব মো. নজরুল ইসলাম চৌধুরী।
বিশেষ অতিথি ছিলেন চন্দনাইশ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ আবদুল জব্বার চৌধুরী।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাছরীন আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) জিমরান মোহাম্মদ সায়েক।
উপজেলা সমাজসেবা অফিসের সুপারভাইজার শফিউল আজিমের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চন্দনাইশ উপজেলা কমান্ডের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা জাফর আলী হিরু, প্রাক্তন উপসচিব বীর মুক্তিযোদ্ধা আসহাব উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইঞ্জিনিয়ার ইসলাম খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা ফেরদাউস ইসলাম খান।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক আবু তোরাব চৌধুরী, এসএম রহমান, মোহাম্মদ কমরুদ্দিন, মুহাম্মদ এরশাদ, নুরুল আলম, জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, এমএ হামিদ, খালেদ রায়হান, আমিনুল ইসলাম রুবেল, ওমর ফারুক, আমিন উল্লাহ টিপু, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট চন্দনাইশ শাখার সভাপতি নুরুল আমজাদ চৌধুরী, যুবলীগ নেতা কাজী শিমুল, ফরমান, সুমন, ইমরান, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ সদস্য বোরহান উদ্দিন গিফারী, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা ওয়াহিদ, কাফি, সুকান্ত, সম্রাট, রবিউল প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের আমলে বীর মুক্তিযোদ্ধাগণের সুযোগ-সুবিধা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অভিপ্রায় অনুযায়ী সারাদেশে মুক্তিযোদ্ধাগণকে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ড প্রদান করা হচ্ছে। এই স্মার্ট আইডিকার্ডের মাধ্যমে বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ সব সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা প্রদান, সরকারি যানবাহনে বিনা ভাড়ায় যাতায়াত, সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবাপ্রাপ্তি, সরকারি-বেসরকারি স্কুলে পোষ্য কোটায় ভর্তি, সরকারি চাকরিতে সন্তান ও পোষ্য কোটায় নিয়োগসহ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য রাষ্ট্র নির্ধারিত সব সুযোগ-সুবিধা ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ডের আওতায় নিশ্চিত করা হয়েছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রে এই ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ডের মাধ্যমে সেবা পাওয়া যাবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাছরীন আক্তার জানান, চন্দনাইশ উপজেলার ২২৮ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার মধ্যে বর্তমানে ১১২ জন জীবিত রয়েছেন। জীবিত মুক্তিযোদ্ধাগণকে ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ড দুটিই দেওয়া হচ্ছে। যে সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাগণ মারা গেছেন, তাঁদের জন্য তাঁদের পরিবারকে শুধু ডিজিটাল সার্টিফিকেট দেওয়া হচ্ছে। ডিজিটাল সার্টিফিকেট ও স্মার্ট আইডিকার্ড যাতে কেউ জাল করতে না পারে, সে জন্য সর্বোচ্চ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে এতে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর