আজ ৪ঠা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৮ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আমি এসবের তোয়াক্কা করি না -অধরা খান

চলতি প্রজন্মের চিত্রনায়িকা অধরা খান। এখন অবস্থান করছেন দুবাইতে। ডিসেম্বরের শেষের দিকে দেশ ছাড়েন তিনি আমেরিকার উদ্দেশ্যে। সেখানে ক্রিসমাস ও থার্টি ফার্ষ্ট নাইট কাটিয়ে দুবাইয়ে গিয়েছেন তিনি কিছুদিন হলো। তবে এবারের সফরের উদ্দেশ্য তার পারিবারিক ব্যবসা। পাশাপাশি ঘুরাঘুরিও করছেন। কারণ তার অভিনীত সিনেমাগুলোর শুটিং এখনই শুরু হচ্ছে না। তাই এই সময়টা তিনি কাজে লাগাচ্ছেন।

সব মিলিয়ে কেমন কাটছে সময়? অধরা দুবাই থেকে বলেন, খুব ভালো। এবার প্রথমবারের মতো একা সফরে বের হয়েছি। আমাদের পারিবারিক ব্যবসা রয়েছে আমেরিকা ও দুবাইতে। সেগুলো দেখাশোনা করার জন্যই এবার আসা।

পাশাপাশি ঘুরাঘুরিটাও চলছে। কিন্তু দেশেতো অধরার ঘন ঘন বিদেশ সফর নিয়ে কথা হচ্ছে। নিশ্চয়ই কানে পৌছেছে বিষয়টি? এ নায়িকা বলেন, এটা খুবই দুঃখজনক। কারণ কারও সম্পর্কে না জেনে কোনো কথা বলা উচিত নয়। আমাদের পারিবারিক ব্যবসাটা দীর্ঘদিনের। তাই মাঝেমধ্যেই আমার পরিবারের সদস্যদের বিদেশে আসতে হয়। তাছাড়া আমার অনেক আতœীয় স্বজনও রয়েছেন দেশের বাইরে। এবারের সফরটিও সেরকমই। কিছু মানুষ নেতিবাচকতা ছড়াতে পছন্দ করেন। তারাই হয়তো এমনটা বলছেন।

তবে আমি এসবের তোয়াক্কা করি না। নিজের জায়গায় আমি সৎ থেকে কাজটা করে যেতে চাই। তবে যে কারও সম্পর্কেই পুরোপুরি না জেনে কথা বলা থেকে বিরত থাকা উচিত। দেশে ফেরা হচ্ছে কবে নাগাদ? অধরা বলেন, চলতি মাসের শেষের দিকেই দেশে ফেরার কথা রয়েছে। দেখা যাক কি হয়। শিল্পী সমিতির নির্বাচন নিয়ে এখনও বিতর্ক চলছে। কি মনে হচ্ছে বিষয়টি নিয়ে? অধরার উত্তর- নিয়মিতই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও পত্রপত্রিকার অনলাইন ভার্সনে দেখেছি নির্বাচনের খবরগুলো। আসলে বিষয়টিতো অনাকাঙ্খিতই।

কারণ কেউই কাদা ছোড়াছুড়ি পছন্দ করে না। আমিও শিল্পী হিসেবে চাই এর অবসান হোক। এর পরিবর্তে আমাদের কাজে মনোযোগ দেয়াটাই জরুরি। বেশ কয়েকটি ছবির শুরু হয়েছিল অধরা অভিনীত। সেই ছবিগুলোর কি খবর? অধরা বলেন, আমি কলকাতার একটি ছবির কাজ করেছি। মালদ্বীপ ও মুম্বইতে তার শুটিং হয়েছে। সেই ছবির কিছু কাজ বাকী হয়েছে। দ্রুতই শুটিং হবার কথা। আর দেশের ভেতর সৈকত নাসির পরিচালিত ‘বর্ডার’ ছবিটি মুক্তি পাবে। এছাড়াও ‘কোভিড নাইনটিন ইন বাংলাদেশ’ এবং ‘গিভ এন্ড টেক’ ছবির কিছু কাজ শেষ হয়েছে। এ দুই ছবির কাজও শুরু হবে সামনে। আর নতুন কিছু ছবির কথা চলছে। ব্যাটে বলে মিললে হয়তো করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর