আজ ৪ঠা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

ভর্তি শুরু একাদশে

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের কলেজে ভর্তির জন্য অনলাইনে আবেদন প্রক্রিয়া শনিবার (৮ জানুয়ারি) থেকে শুরু হয়েছে। প্রথম দফায় ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

গতবছরের ন্যায় এবারও অনলাইনে আবেদন করতে হচ্ছে। মেধা তালিকাও অনলাইনে প্রকাশ করা হবে। এছাড়া এবার বেড়েছে আসন সংখ্যাও। নগরের ৮টি সরকারি কলেজে ২৩০টি আসন বাড়ানো হয়েছে। এসব কলেজে মোট আসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ হাজার ৪১৫টি।

একাদশে ভর্তি সংক্রান্ত ওয়েবসাইটে (www.xiclassadmission.gov.bd) আবেদন করতে হবে শিক্ষার্থীদের। অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে ভর্তির আবেদন করতে পারবে। আবেদন ফি বাবদ ১৫০ টাকা দিতে হবে প্রতি শিক্ষার্থীকে। শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিশ্চায়ন ফি ২২৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। টেলিটক এবং মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে এ ফি পরিশোধ করতে হবে। এ বছর একাদশ শ্রেণীতে ভর্তির ক্ষেত্রে বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রবাসী ও বিকেএসপি কোটা বহাল রেখে বাকি সব কোটা বাতিল করা হয়েছে।

বিজ্ঞান বিভাগে বেড়েছে জিপিএ ৫

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে এবার জিপিএ ৫ পেয়েছে ১২ হাজার ৭৯১ জন। এর মধ্যে বিজ্ঞানে জিপিএ ৫ পেয়েছে ১১ হাজার ২৯১ জন। মানবিকে ১৫৬ জন এবং ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ১ হাজার ৩৪৪ জন। বিজ্ঞান শাখায় আসনের তুলনায় জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা তিনগুণেরও বেশি। এতে ভালো ফল করেও ‘ভালো’ কলেজে ভর্তি নিয়ে দুশ্চিন্তা থেকেই যাচ্ছে বিজ্ঞানের শিক্ষার্থীদের।

পরিবর্তন করা যাবে পছন্দক্রম

আবেদনের নির্ধারিত সময়ের (৮-১৫ জানুয়ারি) মধ্যে আবেদনকারী শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ ৫ বার আবেদনে পছন্দক্রম ও কলেজ পরিবর্তনের সুযোগ পাবে। তবে প্রাথমিক নিশ্চায়নের পর আবেদনে আর কোনও পরিবর্তন করা যাবে না।

পুনঃনিরীক্ষণে আবেদনকারী যা করবেন

এসএসসির ফল পুনঃনিরীক্ষণে আবেদনকারী শিক্ষার্থীদেরও ১৫ জানুয়ারির মধ্যে আবেদন করতে হবে। কেবল পুনঃনিরীক্ষায় ফল পরিবর্তন হওয়া শিক্ষার্থীরা নতুন করে ২২ ও ২৩ জানুয়ারি পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ পাবে। প্রথম দফায় নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হবে ২৯ জানুয়ারি। ৩০ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ভর্তি নিশ্চায়ন করতে হবে। ভর্তি প্রক্রিয়া শেষে ২ মার্চ থেকে একাদশে ক্লাস শুরু হবে। আবেদনের সময়-সিডিউল সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য, নির্দেশিকা ও ফি প্রদানের পদ্ধতি, ভর্তি সংক্রান্ত তথ্য ওয়েবসাইটে (www.xiclassadmission.gov.bd) পাওয়া যাবে।

সতর্ক হতে হবে মোবাইল নম্বর প্রদানে

আবেদনের সময় প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে যোগাযোগের নম্বর হিসেবে একটি মোবাইল নম্বর দিতে হবে। আবেদনের সময়ে দেওয়া এ মোবাইল নম্বরটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, আবেদন পরবর্তী ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য এই মোবাইল নম্বরেই পাঠানো হবে। কন্ট্রাক্ট নম্বর হিসেবে প্রদত্ত এই মোবাইল নম্বর অবশ্যই রেজিস্ট্রেশনকৃত (বায়োমেট্রিক) হতে হবে। যাতে কোনও কারণে মোবাইল হারিয়ে গেলেও সিমটি পুনরায় উত্তোলন করা যায়। যোগাযোগের নম্বর হিসেবে একই মোবাইল নম্বর কোনোভাবেই একাধিক আবেদনে ব্যবহার করা যাবে না।

চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক প্রফেসর জাহেদুল হক বলেন, শনিবার (৮ জানুয়ারি) থেকে একাদশে ভর্তির আবেদন শুরু হয়েছে। প্রথম ধাপে চলবে ১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। আগামী ২৯ জানুয়ারি প্রথম দফায় নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ করা হবে। একাদশে ভর্তিতে অনলাইনে আবেদনের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন ৫টি এবং সর্বোচ্চ ১০টি কলেজের পছন্দক্রম দিয়ে আবেদন করা যাবে।

তিনি আরও বলেন, আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি শিক্ষার্থীদের সিলেকশন নিশ্চায়ন করতে হবে৷ সিলেকশন নিশ্চায়ন না করলে তাকে পুনরায় ফিসহ আবেদন করতে হবে। ৭ ও ৮ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন নেওয়া হবে। পছন্দক্রম অনুযায়ী প্রথম মাইগ্রেশনের ফল এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে ১০ ফেব্রুয়ারি। ১১ থেকে ১২ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় পর্যায়ে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের সিলেকশন নিশ্চিত করতে হবে। এই সময়ের মধ্যে সিলেকশন নিশ্চিত না করলে আবেদন বাতিল হবে।

১৩ ফেব্রুয়ারি তৃতীয় পর্যায়ের আবেদন নিয়ে পছন্দক্রম অনুযায়ী দ্বিতীয় মাইগ্রেশনের ফল এবং তৃতীয় পর্যায়ের আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে ১৫ ফেব্রুয়ারি। ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি তৃতীয় পর্যায়ে নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের সিলেকশন নিশ্চায়ন করতে হবে। এই সময়ের মধ্যে সিলেকশন নিশ্চায়ন না করলে আবেদন বাতিল হবে। ১৯ থেকে ২৪ ফেব্রুয়ারি শিক্ষার্থীদের ভর্তি করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর