আজ ৪ঠা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সংগৃহীত ছবি

যুক্তরাজ্যের নেতৃত্বে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত ৪ নারী, লেবার পার্টির কাছে ভরাডুবি কনজারভেটিভের


অনলাইন ডেস্কঃ যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয় পেয়েছে লেবার পার্টি। দেশটিতে টানা ১৪ বছর ধরে ক্ষমতায় থাকা কনজারভেটিভ পার্টির এবার ভরাডুবি হয়েছে। এবারের নির্বাচনে লেবার পার্টির মনোনয়নে জয়লাভ করেছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত চার প্রার্থী।

বিবিসি জানিয়েছে, যুক্তরাজ্যে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে কোনো দলের ৩২৬ আসনের প্রয়োজন। লেবার পার্টি ৪১২ আসনে জয় নিশ্চিত করেছে। অন্যদিকে কনজারভেটিভ পার্টি পেয়েছে ১২১টি আসন।

ক্ষমতাসীন দলের প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক এরই মধ্যে পরাজয় মেনে নিয়ে লেবার পার্টির নেতা কেয়ার স্টারমারকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। লেবার পার্টির বিশাল এই জয়ের মধ্যে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত চার প্রার্থীও বাজিমাত করেছেন।

রুশনারা আলী
লেবার পার্টি থেকে টানা পঞ্চমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হয়েছেন রুশনারা আলী। টাওয়ার হ্যামলেটসের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসন থেকে জিতেছেন তিনি। জানা যায়, রুশনারা আলী ১৫ হাজার ৮৯৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আজমল মাশরুর পেয়েছেন ১৪ হাজার ২০৭ ভোট।

যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্টের প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি রুশনারা আলী। লন্ডনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসের বেথনাল গ্রিন অ্যান্ড বো আসনে ২০১০ সাল থেকে এর আগে টানা চারবার এমপি নির্বাচিত হন তিনি। ২০১০ থেকে আন্তর্জাতিক উন্নয়নবিষয়ক ছায়ামন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন রুশনারা আলী। এরপর তিনি ২০১৩ সালের অক্টোবরে ছায়া শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী নিযুক্ত হন।

টিউলিপ সিদ্দিক
যুক্তরাজ্যের জাতীয় নির্বাচনে লেবার পার্টি থেকে জয় পেয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিকও। ব্রিটেনের হ্যাম্পস্টেড অ্যান্ড হাইগেট আসন থেকে এমপি হিসেবে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন যুক্তরাজ্যের নির্বাচনে লড়ছেন ৩৪ বাংলাদেশি

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, এবারের নির্বাচনে ২৩ হাজার ৪৩২ ভোট পেয়েছেন টিউলিপ। তার প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টির প্রার্থী ডন উইলিয়ামস পেয়েছেন ৮ হাজার ৪৬২টি ভোট।

জয়ের পর সময় সংবাদকে এক প্রতিক্রিয়ায় টিউলিপ সিদ্দিক বলেন, ‘সবাইকে শুভেচ্ছা জানাই। আপনাদের দোয়ায় চতুর্থবারের মতো আমি নির্বাচিত হলাম।’

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশি কমিউনিটি সব সময় আমাকে সমর্থন করে। আমি তাদের প্রতি খুবই কৃতজ্ঞ যে, তারা এবারও আমাকে সমর্থন দিয়েছেন।

রুপা হক
ব্রিটিশ সরকারে ওয়েবসাইট থেকে জানা গেছে, এবারের নির্বাচনে পশ্চিম লন্ডনের ইলিং সেন্ট্রাল অ্যান্ড অ্যাকটন আসনে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন রুপা হক। তিন মোট গণনাকৃত ভোটের ৪৬ দশমিক ৮ শতাংশ পেয়েছেন।

লেবার পার্টির মনোনয়নে ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো এমপি নির্বাচিত হন রুপা হক। এরপর টানা তিনবার তিনি এমপি নির্বাচিত হয়েছেন। এবারও লেবার পার্টির টিকিটেই জয়লাভ করেছেন।

২০১৬ সালের অক্টোবরে লেবার পার্টির ছায়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান রুপা হক। তাকে সর্বদলীয় সংসদীয় মিউজিক গ্রুপের ভাইস চেয়ার এবং ক্রসরেলের সর্বদলীয় সংসদীয় পদে নিযুক্ত করা হয়েছিল।

আফসানা বেগম
পূর্ব লন্ডনের পপলার অ্যান্ড লাইমহাউস আসন থেকে লেবার পার্টির মনোনয়নে দ্বিতীয়বারের মতো জয়লাভ করেছেন আফসানা বেগম। মোট ১৮ হাজার ৫৩৫টি ভোট পেয়ে এবারের নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন তিনি।

আফসানার প্রতিদ্বন্দ্বী গ্রিন পার্টির নাথালি বেইনফিট ৫ হাজার ৯৭৫টি, কনজারভেটিভ পার্টির ফ্রেডি ডউনিং ৪ হাজার ৭৩৮টি, স্বতন্ত্র প্রার্থী আফসানার প্রাক্তন স্বামী এহতেশামুল হক ৪ হাজার ৫৫৪টি ভোট পেয়েছেন। জয়ের পর প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে তিনি বলেন, ‘পুনর্নির্বাচিত হতে পেরে আমি আনন্দিত।’

তথ্যসূত্র: সময়নিউজ


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর