আজ ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কর্ণফুলী উপজেলাসহ ৫২উপজেলা গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা


ওসমান হোসাইন(কর্ণফুলী)চট্টগ্রাম:

মুজিববর্ষ উপলক্ষে সারাদেশে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে একযোগে তিনি এসব ঘর উদ্বোধন করেন।

এরই ধারাবাহিকতায় কর্ণফুলী উপজেলার অস্থায়ী কার্যালয় হল রুমে উপজেলার গৃহহীন ও ভূমিহীন অনুষ্ঠান সহকারি কমিশনার(ভূমি) ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ভারপ্রাপ্ত পিযুষ কুমার চৌধুরী সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে,এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা প্রকৌশলী.গোলাম মোস্তফা, প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা,ডাঃ রুমন তালুকদার.মাধ‍্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা,বাবুল চন্দ্র নাথ.শিক্ষা কর্মকর্তা মহিউদ্দিন মোঃ আলমগীর,উপ-মহাব‍্যবস্থাপক পল্লী বিদুৎ কর্মকর্তা এ,কে এম মাসুদুর রহমান,সহকারি প্রোগ্রামার ফাতেমা জান্নাত স্বর্ণা ও বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা বৃন্দ প্রমূখ।

এইসময় ভারপ্রাপ্ত ইউএনও পিযুষ কুমার চৌধুরী বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে আমাদের ছোট উপজেলায় ৪০টি ঘর পেয়েছি আপনারা যারা ঘর পেয়েছেন তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্য দোয়া করবেন।

কর্ণফুলী উপজেলায় ৪০টি ঘরের মধ্যে গৃহহীন ও ভূমিহীনদের আশ্রয়ণ কেন্দ্র ক) বড়উঠান ইউনিয়ন মধ্য :৮(আট)পরিবার খ) চরলক্ষ‍্যা ইউনিয়ন : ১৩(তের)পরিবার গ) শিকলবাহা : ২(দুই)পরিবার ঘ) জুলধা ইঊনিয়ন ডাঙ্গাচরর: ১৭(সতের)পরিবার।

এইসময় উপকারভোগী মুহাম্মদ সালাহউদ্দিন( চরলক্ষ‍্যা).কান্নাজনিত কন্ঠে বলেন, আমি ঘর পেয়ে অনেক বেশি খুশি। এতদিন পরে মাথা গুজার ঠাই পেলাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে দোয়া করব তিনি যেন সুস্থ্য থাকে।

আজ বৃহস্পতিবার সারাদেশে তৃতীয় ধাপে ২৬ হাজার ২২৯টি হস্তান্তর করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রসঙ্গত, আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় ২০২১-২০২২ পর্যন্ত ১ লাখ ৮৫ হাজার ১২৯টি বাড়ি বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

‘দেশে একজন মানুষও গৃহহীন, ভূমিহীন থাকবেনা’- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই অঙ্গীকার বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে এর মাধ্যমে দেশের ৪৯২টি উপজেলার ১ লাখ ৩১ হাজার ৬৪৫ জন মানুষ নিজের ঠিকানা পেল।

ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ৫২ উপজেলাগুলো হচ্ছে- ঢাকার নবাবগঞ্জ, মাদারীপুরের মাদারীপুর সদর, শরীয়তপুরের ডামুড্যা, কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী, টাঙ্গাইলের গোপালপুর, মানিকগঞ্জের ঘিওর, সাটুরিয়া, রাজবাড়ীর কালুখালী, ফরিদপুরের নগরকান্দা, নেত্রকোনার মদন, ময়মনসিংহের ভালুকা, নান্দাইল, ফুলপুর, ফুলবাড়িয়া, জামালপুরে বকশীগঞ্জ, চট্টগ্রামের পটিয়া, কর্ণফুলী, সাতকানিয়া, লোহাগাড়া, লক্ষ্মীপুরের রায়পুর, রামগঞ্জ, ফেনীর ফেনী সদর, ছাগলনাইয়া, ফুলগাজী, পরশুরাম, গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ, পঞ্চগড়ের আটোয়ারী, পঞ্চগড় সদর, দেবীগঞ্জ, তেঁতুলিয়া, বোদা।

এছাড়া ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত উপজেলাগুলোর মধ্যে রয়েছে- দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ, ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী, নীলফামারীর ডিমলা, নওগাঁর রাণীনগর, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি, রাজশাহীর মোহনপুর, চারঘাট, বাঘা, বগুড়ার নন্দীগ্রাম, দুপচাঁচিয়া নাটোরের বাগাতিপাড়া, পাবনার ঈশ্বরদী, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ, ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু, সাতক্ষীরার তালা, মাগুরা সদর, শ্রীপুর, মোহম্মদপুর, শালিখা, ঝালকাঠির কাঠালিয়া, পটুয়াখালীর দশমিনা।


Leave a Reply

Your email address will not be published.

     এই বিভাগের আরও খবর